মঙ্গলবার, ২১ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১১:৩২ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম:
Logo কুমিল্লা-৭ আসনে বিজয়ী ডা. প্রাণ গোপাল দত্ত Logo এবার নিজেদের নেতৃত্বে আন্দোলন-নির্বাচনের ছক কষছে বিএনপি Logo পরীক্ষায় ফেল করলে বিয়ে করা যাবে না, সরকারি নিয়ম Logo চৌদ্দগ্রাম প্রেসক্লাবের সভাপতি রিপনকে রোটারি ক্লাব অব কুমিল্লা ফেমাসের সংবর্ধনা Logo চৌদ্দগ্রামে আওয়ামী লীগ নেতা ইকবাল মজুমদারের ইন্তেকাল Logo বিনামূল্যে পাটবীজ, সার ও নগদ অর্থ বিতরণ Logo কুমিল্লা- ৭ উপ-নির্বাচনে মনোনয়নপত্র জমা দিলেন ডা. প্রাণ গোপাল দত্ত Logo কিশোর গ্যাংয়ের হামলায় এসএসসি পরীক্ষার্থী আহত Logo আজ প্রফেসর ড. মোঃ আবদুল কুদ্দুসের ১৫তম মৃত্যুবার্ষিকী Logo চৌদ্দগ্রামে প্রেমিক যুগলের আত্মহত্যার চেষ্টা Logo ফারিয়ার মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত Logo Logo নিউজিল্যান্ডকে হারিয়ে বাংলাদেশের ঐতিহাসিক বিজয় Logo চৌদ্দগ্রামে আন্তর্জাতিক সাক্ষরতা দিবস উদযাপন Logo নারী ও শিশু নির্যাতন প্রতিরোধ কমিটির ত্রৈমাসিক সভা অনুষ্ঠিত Logo কুমিল্লায় জোড়া খুনের ঘটনায় পুত্রবধূসহ গ্রেফতার-৩ Logo রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রীর অভিনন্দন Logo প্রাডো গাড়িতে মাদক আটক-৪

শিশু তানিম হত্যা-সুপ্রিমকোটে আসামীর মৃত্যুদন্ড বহাল

প্রশাসন / ১৭৯ বার পঠিত
সময়: শনিবার, ১৭ জুলাই, ২০২১, ১১:৪৪ পূর্বাহ্ণ

 চৌদ্দগ্রাম প্রতিনিধি: কুমিল্লার  আলোচিত মিনহাজুল আবেদিন তানিম (১০)   তৃতীয় শ্রেণির এই  শিশু হত্যা মামলার আসামি মো. মাহবুবুর রহমানের মৃত্যুদন্ড বহাল রেখেছেন সুপ্রিম কোর্টের আপিল বিভাগ। আসামির করা আপিল খারিজ করে বৃহস্পতিবার (১৫ জুলাই) এ রায় দেন প্রধান বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেনের নেতৃত্বে ছয় সদস্যের বিচারপতির আপিল বিভাগের ভার্চুয়াল বেঞ্চ। এতে করে রায় কার্যকরে আর তেমন বাধা থাকলো না। মিনহাজুল আবেদিন তানিম চৌদ্দগ্রাম পৌরসভার চাঁন্দিশকরা গ্রামের জয়নাল আবেদীন পাটোয়ারীর একমাত্র ছেলে। তানিমকে কুমিল্লার একটি নামকরা স্কুলে ভর্তি করিয়ে সন্তানকে নিয়ে কুমিল্লা শহরে থাকতেন তার মা নূসরাত জাহান। আর বাবা জয়নাল আবেদীন পাটোয়ারী তখন আমেরিকা প্রবাসী ছিলেন। ২০০৭ সালের ১৬ সেপ্টেম্বর তৃতীয় শ্রেণির শিক্ষার্থী মিনহাজুল আবেদিন তানিম (১০) ইবনে তাইুময়া স্কুল  থেকে ফেরার পথে তাকে  অপহরন শিকার হয়। এ ঘটনায় পুলিশ মাহবুবুর রহমান, রিপন চন্দ্র দাস এবং আলমগীর নামের তিন জনকে গ্রেফতার করে।  গ্রেফতারের পর তারা ১৬৪ ধারায় স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দেন।
মাহবুবুর রহমান জবানবন্দিতে বলেন, সে শিশু তানিমকে মাথায় আঘাত করে হত্যা করে লাশ বাসার ছাদের উপর লুকিয়ে রাখে। বিচার শেষে এ মামলায় মাহবুবুর রহমানকে মৃত্যুদন্ড এবং রিপন চন্দ্র দাস ও আলমগীরকে সাত বছরের সশ্রম কারাদন্ড দেন বিচারিক আদালত। নিয়ম অনুসারে মৃত্যুদন্ডাদেশ অনুমোদনের জন্য হাইকোর্টে ডেথ রেফারেন্স পাঠানো হয়। পাশাপাশি কারাবন্দি মাহবুবুর রহমান আপিল করেন। শুনানি শেষে মাহবুবুর রহমানের মৃত্যুদন্ড বহাল রাখেন হাইকোর্ট। একইসঙ্গে রিপনের দন্ড বহাল রেখে আলমগীরকে খালাস দেন। পরে আপিল বিভাগে জেল আপিল করে মাহবুব। বৃহস্পতিবার তার আপিল খারিজ করে দেয়া হয়। আদালতে আপিল শুনানিতে আসামিপক্ষে ছিলেন অ্যাডভোকেট সৈয়দ মোহাইমেন বকস। রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল বিশ্বজিৎ দেবনাথ। তানিমের মা নুসরাত জাহান  জানান, আমি মহামান্য সুপ্রিম কোট এবং সরকারের কাছে কৃতজ্ঞ। সুপ্রিম কোট দ্রুত এই মামলার চুড়ান্ত রায় ঘোষনা করেছে। এবার আমি সরকারের কাছে আবেদন করি সরকার যেন দ্রুত এই মামলার একমাত্র ফাঁসির আসামীর রায় কার্যকর করা হয়।
তানিমের বাবা জয়নাল আবেদীন পাটোয়ারী জানান, আমি তখন আমেরকিায়  ছিলাম। আমার একমাত্র সন্তান তানিম কে উচ্ছ শিক্ষায় শিক্ষিত করতে কুমিল্লার নাম করা স্কুলে ভর্তি করিয়ে ছিলাম। ঘাতকরা আমার বুকের মানিককে নির্মমভাবে হত্যা করেছে। আমি এই ঘাতকের ফাসির রায় দ্রুত কার্যকরের দাবী জানাচ্ছি।
সংবাদটি শেয়ার করুন:
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরও সংবাদ

সবর্শেষ পঠিত সংখ্যা

আকার্ইভ বাংলা ক্যালেন্ডার

শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
 
১০১১১২১৩১৪১৫১৬
১৭১৮১৯২০২১২২২৩
২৪২৫২৬২৭২৮২৯৩০
৩১  

বাংলাদেশের সকল অনলাইন পত্রিকা সমূহ

ফেসবুকে আমরা

আজকের সেহরি ও ইফতারের সময়সূচী

.

সুরক্ষা অনলাইন