বৃহস্পতিবার, ২৭ জানুয়ারী ২০২২, ১১:৪২ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম:
Logo চৌদ্দগ্রামে আইন শৃঙ্খলা কমিটির মাসিক সভা অনুষ্ঠিত Logo চৌদ্দগ্রাম উপজেলা মাদ্রাসা শিক্ষক সমিতির প্রতিনিধি সভা অনুষ্ঠিত Logo শাহ জালালের বিরুদ্ধে ইউনিয়ন নেতৃবৃন্দের অনাস্থা Logo চৌদ্দগ্রামে জাতীয় বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি সপ্তাহ এবং বিজ্ঞান মেলার উদ্বোধন  Logo দলীয় শৃঙ্খলা ভঙ্গের অভিযোগে শাহজালাল মজুমদার কে সদস্য পদ থেকে অব্যাহতি Logo ১১ বছরেও ফেলানী হত্যার বিচার না পেয়ে হতাশ মা–বাবা Logo চৌদ্দগ্রামে শিক্ষার্থীদের টিকা দেওয়া শুরু Logo চৌদ্দগ্রামে গাঁজাসহ যুবক আটক Logo কাশিনগরে চেয়ারম্যান মোশারেফ হোসেনের উদ্যোগে শোকরানা মাহফিল অনুষ্ঠিত Logo চৌদ্দগ্রামে আইজিপি কাবাডি টুর্ণামেন্টের উদ্বোধন Logo কনকাপৈতে চেয়ারম্যান প্রার্থী আব্দুর রাজ্জাক রাশেদের র‌্যালী ও পথসভা অনুষ্ঠিত Logo আওয়ামী লীগ নেতা ভ ম আফতাবের পরিবারকে সাবেক রেলমন্ত্রীর পাঁচ লক্ষ টাকা অনুদান Logo আওয়ামী লীগ নেতা ভ ম আফতাবের দ্বিতীয় মৃত্যু বার্ষিকী পালন Logo চৌদ্দগ্রামে ইউপি নির্বাচনে ৬৭০ প্রার্থীর মনোনয়নপত্র দাখিল Logo চতুর্থ ধাপের ইউপি নির্বাচন পিছিয়ে ২৬ ডিসেম্বর Logo দূর্বৃত্তদের গুলিতে কুসিক কাউন্সিলরসহ নিহত ২ Logo চৌদ্দগ্রামে দুই মাদক ব্যবসায়ী আটক Logo কুমিল্লার প্রবীণ আওয়ামী লীগ নেতা আফজল খান আর নেই

১১ বছরেও ফেলানী হত্যার বিচার না পেয়ে হতাশ মা–বাবা

প্রশাসন / ৩১ বার পঠিত
সময়: শুক্রবার, ৭ জানুয়ারি, ২০২২, ৪:০৭ অপরাহ্ণ

এ রায় প্রত্যাখ্যান করে ভারতীয় মানবাধিকার সংগঠন মাসুমের সহযোগিতায় ভারতীয় সুপ্রিম কোর্টে রিট আবেদন করে ফেলানীর পরিবার। ২০১৪ সালের ২২ সেপ্টেম্বর পুনর্বিচার শুরু হলে ১৭ নভেম্বর আবারও আদালতে সাক্ষ্য দেন ফেলানীর বাবা। এরপর ২০১৫ সালের ২ জুলাই আদালত পুনরায় অমিয় ঘোষকে খালাস দেন। রায়ের পর একই বছর ১৪ জুলাই মানবাধিকার সংগঠন মাসুম ফেলানীর বাবার পক্ষে ভারতের সুপ্রিম কোর্টে রিট করে। ওই বছর ৬ অক্টোবর রিট শুনানি শুরু হয়। ২০১৬ ও ২০১৭ সালে কয়েক দফা শুনানি পিছিয়ে যায়। পরে ২০১৮ সালের ২৫ জানুয়ারি শুনানির দিন নির্ধারণ করা হলেও শুনানি হয়নি। এরপর ২০১৯ ও ২০২০ সালে কয়েকবার শুনানির দিন নির্ধারণ করা হলেও শেষ পর্যন্ত শুনানি হয়নি। ২০১১ সালের ৭ ডিসেম্বর ভারতীয় সীমান্তরক্ষী বাহিনীর (বিএসএফ) গুলিতে নিহত হয় কুড়িগ্রামের নাগেশ্বরী উপজেলার দক্ষিণ কলনিটারী গ্রামের ১৫ বছরের কিশোরী ফেলানী। আজ শুক্রবার নির্মম এ হত্যাকাণ্ডের ১১ বছর পূর্ণ হলো।

এ প্রসঙ্গে কুড়িগ্রাম জজ আদালতের সরকারি কৌঁসুলি (পিপি) এস এম আব্রাহাম লিংকন জানান, ভারতের সুপ্রিম কোর্টে ফেলানী হত্যার রিটটি কার্যতালিকার তিন নম্বরে ছিল। কয়েক দফা শুনানির তারিখ পিছিয়ে গেছে। বর্তমানে করোনা পরিস্থিতির জন্য ভার্চ্যুয়াল আদালত চলছে। পরিস্থিতি ভালো হলে রিটটি শুনানি হবে বলে আশা করেন তিনি। আব্রাহাম লিংকন বলেন, ফেলানী হত্যা মামলায় ফেলানীর পরিবার কোনো প্রতিকার পায়নি। মামলার কোনো অগ্রগতি নেই, ভারতীয় মানবাধিকার কমিশনও ক্ষতিপূরণ দেওয়ার ব্যাপারে কোনো আদেশ দেয়নি। ফলে তাঁর পরিবার হতাশ হয়ে পড়েছে। বিএসএফের সদস্য অমিয় ঘোষ হত্যার কথা স্বীকার করেছেন। তাই এ মামলায় তাঁর সাজা পাওয়াটাই ন্যায্য বিচার হবে। ভারতের আদালত দ্রুত মামলাটির নিষ্পত্তি করলে কোনো বাহিনীর সদস্য সীমান্তে উচ্ছৃঙ্খলতা দেখাতে পারবেন না।

সংবাদটি শেয়ার করুন:


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরও সংবাদ

সবর্শেষ পঠিত সংখ্যা

আকার্ইভ বাংলা ক্যালেন্ডার

শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
১০১১১২১৩১৪
১৫১৬১৭১৮১৯২০২১
২২২৩২৪২৫২৬২৭২৮
২৯৩০৩১  

বাংলাদেশের সকল অনলাইন পত্রিকা সমূহ

ফেসবুকে আমরা

আজকের সেহরি ও ইফতারের সময়সূচী

.

সুরক্ষা অনলাইন